What is Atal Pension Yojana? কিভাবে আমি অনলাইন আবেদনপত্র জমা দেবো?

বৃদ্ধ বয়সে সমাজিক সুরক্ষা দেওয়ার বিষয়টি নিয়ে ভারত সরকার খুবই চিন্তাশীল। আর সেই জন্যই ভারত সরকার চালু করেছেন অটল পেনশন যোজনা। এই যোজনায় প্রতিদিন ৭ টাকা বা মাসে ২১০ টাকা করে জমা দিলেই পেয়ে যাবেন প্রতি মাসে ৫,০০০ টাকা করে। 


অটল পেনশন যোজনায় নাম নথিভুক্তিকরণের সংখ্যা কোটি ৩০ লক্ষ ছাড়িয়েছে, চলতি বছরে (২০২১২২) অর্থবর্ষের প্রথম পাঁচ মাসে অটল পেনশন যোজনায় নাম নথিভুক্ত হওয়া গ্রাহকের সংখ্যা ২৮ লক্ষের বেশি



অটল পেনশন যোজনা কি?

  • ভারত সরকারের একটি সুনিশ্চিত পেনশন কর্মসূচি হল অটল পেনশন যোজনা (APY)। এই কর্মসূচি রূপায়ণের দায়িত্বে রয়েছে পিএফআরডিএ। 

  • দরিদ্র, পিছিয়ে পড়া, অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিক সহ সব ভারতীয়কে সামাজিক সুরক্ষা যোজনার আওতায় নিয়ে আসার জন্য কেন্দ্র ২০১৫ সালের ৯ই মে অটল পেনশন যোজনার সুচনা করে। ২০১৫ সালের লা জুন থেকে এই যোজনা কার্যকর হয়।

 

ভারত সরকারের একটি সুনিশ্চিত পেনশন কর্মসূচি হল অটল পেনশন যোজনা (Atal Pension Yojana) এই কর্মসূচি রূপায়ণের দায়িত্বে রয়েছে Pension Fund Regulatory and Development Authority (PFRDA) চলতি ২০২১২২ অর্থবর্ষের প্রথম পাঁচ মাসে কর্মসূচিতে নতুন অ্যাকাউন্টধারীর সংখ্যা ২৮ লক্ষের বেশি। একইভাবে, গত ২৫ আগস্ট পর্যন্ত যোজনার আওতায় নাম নথিভুক্ত গ্রাহকের সংখ্যা কোটি ৩০ লক্ষ ছাড়িয়েছে, মন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী 


  1. রাষ্ট্রায়ত্ত ক্ষেত্রের ব্যাঙ্কগুলিতে ২০২১এর ২৫ আগস্ট পর্যন্ত কর্মসূচির আওতায় (তালিকায়) অ্যাকাউন্টধারীর সংখ্যা কোটি ৩৩ লক্ষ ২৬ হাজার ৮৫৫।
  2. বেসরকারি ব্যাঙ্কগুলিতে অ্যাকাউন্টধারীর সংখ্যা ২০২১এর ২৫ আগস্ট পর্যন্ত ২০ লক্ষ ৬৪ হাজার ৩৪২।
  3. অন্যদিকে, আঞ্চলিক গ্রামীণ ব্যাঙ্কগুলিতে কর্মসূচিতে মোট অ্যাকাউন্টধারীর সংখ্যা ৬১ লক্ষ ৩১ হাজার ৮৭৪। 
  4. ডাকঘরগুলিতে অ্যাকাউন্টধারীর সংখ্যা লক্ষ ৩৯ হাজার ৯১৫। 


পরিসংখ্যান অনুযায়ী রাষ্ট্রায়ত্ত ক্ষেত্রের ব্যাঙ্কগুলির মধ্যে সর্বাধিক সংখ্যায় অ্যাকাউন্ট রয়েছে ভারতীয় স্টেট ব্যাঙ্কে, লক্ষ ৯৯ হাজার ৪২৮টি। উল্লেখযোগ্যভাবে বেসরকারি সংস্থা এয়ারটেল পেমেন্টস ব্যাঙ্ক লিমিটেডে কর্মসূচির আওতায় ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টধারীর সংখ্যা লক্ষ হাজার ৬৪৩। রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক অফ বরোদায় অটল পেনশন যোজনায় অ্যাকাউন্টধারীর সংখ্যা লক্ষ হাজারের কিছু বেশি। 



মন্ত্রকের পক্ষ থেকে প্রকাশিত গত ২৫ আগস্ট পর্যন্ত পরিসংখ্যান অনুযায়ী অটল পেনশন যোজনার আওতায় ১০ লক্ষের বেশি গ্রাহক রয়েছেন এমন প্রথম ১০টি রাজ্যের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গও রয়েছে। প্রথম ১০টি রাজ্যের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গ তৃতীয় স্থানে রয়েছে। এই রাজ্যে যোজনার আওতায় গ্রাহক সংখ্যা ২৬ লক্ষ ১৮ হাজার ৬৫৬। অন্যদিকে তালিকায় প্রথম স্থানে থাকা উত্তরপ্রদেশে কর্মসূচির আওতায় মোট গ্রাহক সংখ্যা ৪৯ লক্ষ ৬৫ হাজার ৯২২। 



অটল পেনশন যোজনার আওতায় মোট নাম নথিভুক্ত গ্রাহকের মধ্যে ২০২১এর ২৫ আগস্ট পর্যন্ত প্রায় ৭৮ শতাংশ গ্রাহক মাসিক হাজার টাকা পর্যন্ত পেনশন হিসেবে উপার্জনের সুবিধাকে বেছে নিয়েছেন। অন্যদিকে প্রায় ১৪ শতাংশ গ্রাহক মাসিক হাজার টাকা পেনশনের সুবিধা নিচ্ছেন। এছাড়াও, মোট নাম নথিভুক্ত গ্রাহকের মধ্যে ৪৪ শতাংশই মহিলা। অন্যদিকে প্রায় ৪৪ শতাংশ গ্রাহক ১৮২৫ বছর বয়সী। অটল পেনশন যোজনার রূপায়ণকারী সংস্থা পিএফআরডিএ (PFRDA) সম্প্রতি একাধিক নতুন উদ্যোগ নিয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে অটল পেনশন যোজনা মোবাইল অ্যাপ, ‘উমঙ্গপ্ল্যান্টফর্মের মাধ্যমে পেনশনের সুবিধা, যোজনার গ্রাহকদের সঠিক তথ্য প্রদানে এফএকিউ ব্যবস্থা। এমনকি, ১৩টি আঞ্চলিক ভাষায় অটল পেনশন যোজনার নাগরিক সনদ। 



অটল পেনশন যোজনার নিয়মনীতি অনুযায়ী ১৮৪০ বছর বয়সী যে কোনও ভারতীয় যাঁরা ব্যাঙ্ক বা ডাকঘরে সেভিংস ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট রয়েছে, তিনি কর্মসূচির সুবিধা গ্রহণ করতে পারেন। কর্মসূচির মাধ্যমে একজন গ্রাহক মাসে ৬০ বছর বয়স পূর্ণ করার পর প্রিমিয়াম হিসেবে জমা করা অর্থের ভিত্তিতে মাসিক হাজার টাকা থেকে হাজার টাকা পর্যন্ত নিশ্চিত পেনশন পেতে পারেন। উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, যে ব্যক্তির নামে অ্যাকাউন্ট থাকবে তিনি প্রয়াত হলে অ্যাকাউন্টে উল্লেখ থাকা নমিনি তাঁর পেনশন সুবিধা নিতে পারেন। অন্যদিকে, যোজনার আওতায় নাম নথিভুক্ত ব্যক্তি বা তাঁর স্বামী / স্ত্রী উভয়ের মৃত্যু হলে অ্যাকাউন্টে নমিনি হিসেবে উল্লেখ থাকা ব্যক্তি ৬০ বছর বয়স পূর্ণ করলেই সঞ্চিত অর্থের পুরোটাই গ্রহণ করতে পারবেন। 



বর্তমানে অটল পেনশন যোজনা ২৬৫টি স্বীকৃত পরিষেবাদাতা সংস্থার মাধ্যমে পাওয়া যাচ্ছে। এর মধ্যে ব্যাঙ্ক শাখা এবং ডাকঘর শাখাও রয়েছে। ব্যাঙ্ক বা ডাকঘরে সেভিংস অ্যাকাউন্ট রয়েছে কেবল এমন ব্যক্তিরাই যেহেতু এই কর্মসূচির সুবিধা নিতে পারেন, তাই রূপায়ণকারী সংস্থা পিএফআরডিএ (PFRDA) নিয়মিতভাবে ব্যাঙ্ক ডাকঘরগুলিকে এই কর্মসূচির পরিধি আরও বাড়ানোর পরামর্শ দিয়ে থাকে।

Leave a Comment